রাজ্য সরকারি প্রকল্প ব্যবসা প্রযুক্তি টেলিকম চাকরির খবর অর্থনীতি স্কলারশিপ
Advertisements

DA ইস্যুতে সরকারি কর্মচারীদের ধর্মঘটের ডাক, রাজ্যে কবে কবে ধর্মঘট?

6th Pay Commission DA Strike: তাহলে কি আজ থেকে সত্যি সত্যি ধর্মঘটের পথে নামলো রাজ্যের সরকারি কর্মচারীরা? বিষয়টি আজকের নয়। বহুদিন ধরেই বকেয়া ডিএ নিয়ে উত্তাল পশ্চিমবঙ্গ। টাকা পেতে বিক্ষোভ…

6th Pay Commission DA Strike: তাহলে কি আজ থেকে সত্যি সত্যি ধর্মঘটের পথে নামলো রাজ্যের সরকারি কর্মচারীরা? বিষয়টি আজকের নয়। বহুদিন ধরেই বকেয়া ডিএ নিয়ে উত্তাল পশ্চিমবঙ্গ। টাকা পেতে বিক্ষোভ থেকে শুরু করে কর্মবিরতি, আন্দোলন কিছুই বাদ যায়নি। তবে, ইতিমধ্যেই রাজ্য সরকারি কর্মীদের জন্য অতিরিক্ত চার শতাংশ বর্ধিত মহার্ঘ ভাতার ঘোষণা করেছেন মুখ্যমন্ত্রী (Mamata Banerjee)। কিন্তু তারপরেও রাজ্য সরকারি কর্মীরা খুশি নয় (6th Pay Commission DA Strike)।

কেননা তারা কেন্দ্রীয় হারে ডিএ-র দাবিতে আইনি লড়াইতে নেমেছে। এমনকি শেষমেষ এই কেস গড়িয়েছে সুপ্রিমকোর্ট। যদিও এখনও পর্যন্ত কোনো রকমের ফয়সালা হয়নি। আর সেই নিয়ে সংশয়ে প্রহর গুনছেন সরকারি কর্মীরা। আর তারই মাঝে হটাৎ খবর এল আজ থেকেই নাকি ধর্মঘটের পথে হাঁটবেন সরকারি কর্মচারীরা। চলুন সবিস্তারে জেনে নেওয়া যাক।

বিষয়টি কি? (What is the matter?)

বিষয়টি সম্পর্কে খোলসা করে বলার আর কিছুই নেই। তাও জানিয়ে রাখা ভালো যে, এখনও পর্যন্ত সরকারি কর্মচারীরা ষষ্ঠ বেতন কমিশনের ১০ শতাংশ হারে ডিএ পান। যেটা কিনা চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে ৪ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। কিন্তু ওদিকে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারীরা ৪৬ শতাংশ হারে ডিএ পায় (6th Pay Commission DA strike)। এমনকি যাকিনা আরও ৪ শতাংশ বাড়ানো হবে বলেও জানা গিয়েছে। আর সেই নিয়ে যত সমস্যার সূত্রপাত। রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা কেন্দ্রীয় হারে ডিএ দাবি করেছেন।

কি কি কারণে সরকারী কর্মচারীরা ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন? (What are the reasons for the government employees to call for a strike?)

একদিকে তো তারা কেন্দ্রীয় হারে মহার্ঘ্য ভাতা অর্থাৎ ডিএ চাইছেন। এছাড়াও অস্থায়ী কর্মচারীদের স্থায়ীকরণ, রাজ্য সরকারের সমস্ত শূন্যপদ পূরণ নিয়ে তারা প্রায় বছরখানেক ধরে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছেন।

আজ থেকেই কি ধর্মঘটের পথে নামছে সরকারি কর্মচারীরা? (Government employees are going on strike from today?)

সেই বিষয়ে বলতে গেলে বলা যায় যে, আগামী ২ ফেব্রুয়ারি থেকে মাধ্যমিক পরীক্ষা। আর উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হচ্ছে ১৬ ফেব্রুয়ারি থেকে। যাকিনা শেষ হবে ২৯ ফেব্রুয়ারি। আর তাই মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের কথা ভেবেই এই মুহূর্তে ধর্মঘট স্থগিত থাকবে। এই দুটি পরীক্ষা মিটে গেলেই মার্চ মাসে ধর্মঘটের পথে নামবে সরকারি কর্মচারীরা।

মার্চ-এপ্রিল ভোটের মরসুমে ধর্মঘট কতটা সফলতা পাবে? (6th Pay Commission DA Strike)

এই বিষয়ে যৌথ সংগ্রামী মঞ্চের একজন ভাস্কর ঘোষ জানিয়েছেন যে, মার্চ মাসে ভোট হবেনা। আর এপ্রিলে ভোট হলে সেই সময় ধর্মঘটের বিষয়ে নির্বাচন কমিশনকে হস্তক্ষেপ করার আর্জি জানিয়েছেন।

আরও পড়ুন: ৭৫ ইউনিট পর্যন্ত বিদ্যুত বিল দিতে হবে না! এমনই প্রকল্প চালু রাজ্যের

এবার শুধু দেখার পালা আগামীদিনে এই ডিএ নিয়ে সরকারি কর্মীদের লড়াই কোনপথে এগোয়।